চিনের বিরুদ্ধে আমেরিকার নতুন ষড়যন্ত্র এবার উচিৎ শিক্ষা পাবে চিন

ভাইরাস (COVID-19) বিষয়ে সমগ্র বিশ্ব চীনের (Chaina) উপর ক্ষিপ্ত হয়ে আছে। মারণ ভাইরাসের উৎপত্তির জন্য সব দেশই চীনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছে। আগামী ৯ ই এপ্রিল সংযুক্ত রাষ্ট্র সুরক্ষা পারিষদের তরফ থেকে বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। এবার আর চীন বাঁচতে পারবে না। কোন চালাকি আর কাজে লাগবে না চীনের। এবার তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিশ্বের প্রায় ৭৪ হাজার মানুষ এই রোগের কবলে পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন এবং প্রায় ১৩ লক্ষ মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এই পরিস্থিতিতে সুরক্ষা পারিষদের প্রধান জানান, UNSC এর অধিকার ক্ষেত্রের সঙ্গে কোভিদ-১৯ বিষয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠক করবেন। সংযুক্ত রাষ্ট্রের মহাসচিবও এই বৈঠকে অংশ নেবেন।

গত সপ্তাহে ডোমনিকান গণরাজ্যের (Dominican Republic) বিশেষ দূত জো সিঙ্গার জানিয়েছিলেন, করোনা ভাইরাসের বিষয়ে আগামী সপ্তাহে সুরক্ষা পারিষদ তাঁদের প্রথম বৈঠক করবেন। এপ্রিল মাসের জন্য এই সভাপতিত্ব করবে ডোমনিকান গণরাজ্য, যেটা গতমাসে ছিল চীনের কাছে। কিন্তু করোনা ভাইরাস বিষয়ে তারা তখন কোন বক্তব্যই রাখেননি। তখনই বোঝা গেছিল চীন তাঁদের নিজেদের দোষ ঢাকতে চাইছে। সেই কারণেই তারা করোনা ভাইরাস বিষয়ে একদমই মুখ খোলেননি।

সযুক্ত রাষ্ট্রে ডোমনিকান গণরাজ্যের বিশেষ দূত জো সিঙ্গার বলেছিলেন, ‘আমরা জানি এখন কোভিদ-১৯ মুখ্য বিষয় হবে। এবং আমরা এই বিষয়ের উপর কাজ করছি। ৫-৬ দেশের রাজদূতরা এই বিষয়ে বৈঠকের জন্য বলেছিলেন এবং দ্রুততার সঙ্গেই করতে বলেছিলেন’।

করোনা ভাইরাসের ব্যাপক প্রসার ইউরোপীয় দেশ ইতালিতে পড়েছে। ১৬ হাজারেরও বেশি মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন। করোনা ভাইরাসের কারণে সবথেকে বেশি ইতালিতেই মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

Authored By Kousik Mondal

Hi, I am Kousik Mondal from Kolkata, India. I am a professional career counselor for the past 5+ years. Love reading news and strongly believe only awareness can create a better future. And A blog scientist by the mind and a passionate blogger by ❤️heart ??

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button